২৮৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

208471.3নিজস্ব প্রতিবেদক: শুরুটা ছিল খুবই বাজে। দুই ওপেনার ইমরুল কায়েস এবং তামিম ইকবাল আউট হওয়ার পর মনে হচ্ছিল উড়তে থাকা নিউজিল্যান্ডের সামনে আজ হয়তো বাংলাদেশও উড়ে যাবে। কিন্তু মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আছে না বাংলাদেশের! টানা দুটি সেঞ্চুরি করে মাহমুদুল্লাহ বাংলাদেশকে নিয়ে গেলেন ২৮৮ রানের এক সম্মানজনক স্কোরে।

হ্যামিল্টনের সেডন পার্কে টস জিতে প্রথমেই বাংলাদেশকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানিয়েছে কিউইরা। আমন্ত্রণ পেয়ে ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই টিম সাউদির কাছ থেকে রান নিয়ে শুভ সূচনা করেন তামিম ইকবাল।

চতুর্থ ওভারের তৃতীয় বলেই কিন্তু ক্যাচ আউট হওয়া থেকে বেঁচে গিয়েছেন তামিম ইকবাল। ট্রেন্ট বোল্টের একটি বলকে খোঁচ দিতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন স্লিপে। সেখানে রস টেলর বলটি তালুবন্দী করতে ব্যার্থ হন।

পরের ওভারেই টিম সাউদির বলে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলে ইমরুল কায়েস। কিন্তু এ যাত্রায়ও বেঁচে গেলেন এই ওপেনার। থার্ড স্লিপের আগেই বলটি পড়ে যায় মাটিতে। শেষ পর্যন্ত ট্রেন্ট বোল্টের ইয়র্কারের কাছে আর টিকতে পারলেন না। ৬ষ্ঠ ওভারের চতুর্থ বলেই বোল্ড হয়ে মাত্র ২ রান করে ফিরে গেলেন ইমরুল কায়েস।

ইমরুল আউট হওয়ার পর উইকেটে যেন নিজেদের মানিয়ে নিতে পেরেছিলেন তামিম আর সৌম্য সরকার। ২-৩টা বাউন্ডারি মেরে সেটাই দেখিয়েছিলেন। কিন্তু ট্রেন্ট বোল্ট থেকে আর বাঁচতে পারলেন না তামিম। ১০ম ওভারের চতুর্থ বলে আবারও খোঁচা দিলেন। এবার সেকেন্ড স্লিপে ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম ভুল করলেন না। তালুবন্দী করে নিলেন ১২ রানে থাকা তামিমের ক্যাচ।

তবে সৌম্য সরকার আর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ মিলে চেষ্টা করছেন বাংলাদেশের ইনিংস গড়ার। আগের ম্যাচেও ৮ রানে ২ উইকেট পড়ার পর এ দু’জন ৮৬ রানের জুটি গড়েছিলেন। আজও সেই চেষ্টা করছেন তারা দু’জন। ৯০ রানের জুটি গড়ার পর বিচ্ছিন্ন হন দু’জন। হাফ সেঞ্চুরিও করে ফেলেন এই দুই ব্যাটসম্যান।

তবে ক্যারিয়ারে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি করার পরই আউট হয়ে যান সৌম্য সরকার। সাকিব আল হাসান মাঠে নেমে কয়েকটি ভালো শট খেলেন। কিন্তু ৩৪ওতম ওভারের শেষ বলে এন্ডারসনের আউট সুইঙ্গারে খোঁচা দিতে গিয়ে আউট হয়ে যান সাকিব আল হাসান।

সাকিব আউট হওয়ার পর মাহমুদুল্লাহর সাথে ৩১ রানের জুটি গড়েন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু ৪০তম ওভারের দ্বিতীয় বলে এন্ডারসের স্লোয়ারে ব্যাটের কানায় লাগিয়ে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান মুশফিক।

এরপর উইকেটে এসে মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে ঝড় তোলেন সাব্বির রহমান। ২৩ বলে ৫ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ৪০ রান করেন আউট হন তিনি। এরই মধ্যে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পূরণ করেন মাহমদুল্লাহ রিয়াদ।

নাসির ৭ বলে করেন ১১ রান। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭ উইকেট হারিয়ে ২৮৮ রান। ১২৩ বলে ১২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মাহমদুল্লাহ রিয়াদ।