ইউরো কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল

রাতে মুখোমুখি বেলজিয়াম-ওয়েলস

Euro-2016-Logoইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে আজ (শুক্রবার) রাতে মুখোমুখি হচ্ছে বেলজিয়াম ও ওয়েলস। ওয়েলসের সামনে প্রাপ্তির অনেক হাতছানি। ১৯৫৮ সালের পর এই ইউরো দিয়েই আবার কোনো বড় আসরে পা রাখা ওয়েলসের।

বেলজিয়ামের জন্য ব্যাপারটা অবশ্য অতটা রোমাঞ্চকর নয়। এই দলটিকে বেলজিয়ান ইতিহাসের অন্যতম সেরা বলা হচ্ছে বেশ কয়েক বছর থেকেই। ২০১৪ বিশ্বকাপের শেষ আটেও গিয়েছিল বেলজিয়াম, কিন্তু মাঠের খেলায় সেভাবে মন ভরাতে পারেনি। এই ইউরোও শুরু ইতালির কাছে হেরে। কিন্তু এরপর থেকেই একটু একটু করে খোলস ছেড়ে বেরিয়েছে। দ্বিতীয় রাউন্ডে দুর্দান্ত এক জয়ে আভাস দিয়েছে, তাদের শেষ পর্যন্ত যাওয়ারও ক্ষমতা আছে। এখন যেভাবে খেলছে, বেলজিয়ামের দৌড় শেষ আটে থেমে গেলে সেটা তাদের জন্য হবে ব্যর্থতা।

সাম্প্রতিক ইতিহাস অবশ্য ওয়েলসকেই আশা দেখাচ্ছে। গত চার বছরে দুই দলের চার ম্যাচের তিনটিতেই অপরাজিত ওয়েলস। কার্ডিফে ইউরো বাছাইপর্বের জয়টা তো ওয়েলসের জন্য স্মরণীয়। ওই ম্যাচে যিনি গোল করেছিলেন, আজও সেই বেলের দিকেই তাকিয়ে থাকবে ওয়েলস। এই টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত দুর্দান্ত খেলছেন, তিন গোলও করে ফেলেছেন।

বেল যদি হন ওয়েলসের, বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্মের সবচেয়ে উজ্জ্বল প্রতিনিধি অবশ্যই এডেন হ্যাজার্ড। ইউরোর শুরুতে একটু গুটিয়ে ছিলেন, কিন্তু এখন হ্যাজার্ড সৌরভ ছড়াতে শুরু করেছেন তীব্রভাবেই। হাঙ্গেরির সঙ্গে অসাধারণ একটি গোলের আগে একটি গোল করিয়েছেন। আজকের ম্যাচটা আবার তাঁর জন্য একটু অন্য রকমও। এই লিলেই মাত্র ১৫ বছর বয়সে পা রেখেছিলেন কিশোর হ্যাজার্ড, এখানেই আলো ছড়িয়ে আসেন পাদপ্রদীপে।

Rent for add