>> অতিথি কলাম <<

  • ঢাকার হকি ঐতিহ্যবাহি। তিরিশ দশকে ঢাকার পিলখানাতে ধ্যানচাঁদ তার ব্যাটালিয়ন ‘ ঝাঁসি হিরোজ’ এর সাথে ছিলেন। হকির শ্রেষ্ঠতম পারদর্শি ধ্যানচাঁদ এবং তার ভাই রুপচাঁদও তখন ঢাকায়। আমার বাবা মরহুম শামসুদ্দিন চাকলাদার ছিলেন তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দলের হকি অধিনায়ক। বহু অনুশীলন হকি ম্যাচ এখানে তারা খেলেছেন।

  • প্রিমিয়ার হকি লিগে আম্পায়ারদের সাথে প্রায়ই খেলোয়াড়দের ভুল বুঝাবুঝির কারণে বিদেশ থেকে আম্পায়ার আনতে হয়েছে খেলা পরিচালনার জন্য। দু’দল মাঠে নামলে হাততালি হয়, আম্পায়ারদের মাঠে প্রবেশের সময় কোনই হাততালি নেই। এরা হলেন বিয়ে বাড়ির কাজির মতন, থাকলে কারো চোখেই পরেনা, না থাকলে হুলস্থুল। আম্পায়ারদের বাঁশি

  • ভারতের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ক্রীড়াবিদ মিলখা সিং। তার জীবনি নিয়ে তৈরী হয়েছে ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ ফিল্ম। তিনি ক্রিকেট নিয়ে খুব উৎসাহ দেখতে রাজী হলেন না, এ জন্য এই খেলাটার নিচে সব খেলাই চাপা পরে যাচ্ছে। একই কথা খাটে আমাদের বাংলাদেশের জন্যও। ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের উচিত অনান্য খেলাকেও

  • যেন দেখতে দেখতেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল। আসলে প্রতিবারই এমন হয়। সেটা ক্রিকেট বিশ্বকাপ হোক আর ফুটবল। খেলার আনন্দে মেতে থাকতে থাকতে কখন টুর্নামেন্ট শেষ হয়ে যায় ঠিক বোঝাই যায় না। আগামীকাল (রবিবার) ফাইনালের পর থেকে ক’টা দিন যে একটু খালি খালি লাগবে সবকিছু

  • টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কিউইদের বিপক্ষে শেষটা ভালো হয়নি টাইগারদের। আগের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ১ রানে হারের পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অমন হতাশ পারফরম্যান্সে স্বাভাবিকভাবেই সবার মন কিছুটা খারাপ। তারপরও আমার বিশ্বাস এবারের টুর্নামেন্টে থেকে বাংলাদেশ অনেক প্রাপ্তি নিয়েই ফিরেছে। যদিও মূল পর্বে আমরা কোন ম্যাচেই জয়ের দেখা

  • সেই ১৯৭৩-৭৪ সালের কথা। হকি অঙ্গনে তখন আলমগীর আদেল আর মমীন ভাইদের পরাক্রম বিশাল। আলমগীর আদেল হলেন ভিক্টোরিয়া স্পোটিং ক্লাবের আর মমীন ভাই হলেন ওয়ারী ক্লাবের। হকি লিগে ওয়ারী ক্লাবের অবস্থান ভাল। যদি ভিক্টোরিয়া স্পোটিং ক্লাবকে এক পয়েন্ট ছেড়ে দেয় ওয়ারী ক্লাব তাহলে ভিক্টোরিয়া স্পোটিং

  • এত আফসোসের দীর্ঘশ্বাস কেন? কেন এত হাহাকার? কী এমন গর্হিত কাজ করলো মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ? গোটা টুর্ণামেন্ট জুড়ে ওর ধারাবাহিক পারফরম্যান্সটা নিমিষেই ভুলে, ওর প্রতি এমন সমালোচনার তীর-বল্লম ছোঁড়াটা ঠিক হচ্ছে কি? আমার তো মনে হয়, বেদনাবোধ আমাদের মধ্যে যতোটা, তার চেয়ে দ্বিগুন বেদনাবোধ, কষ্ট আর

  • ৩০শে মার্চ নয়া দিল্লিতে প্রথম সেমিফাইনাল । আর ৩১শে মার্চ মুম্বাইতে দ্বিতীয় সেমিফাইনাল। ফাইনালটা হবে কলকাতায়, ৩রা এপ্রিল। ১০টি দল দুটো ভাগে খেলছে । শ্রীলঙ্কা, সাউথ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, ওয়েষ্ট ইন্ডিজ আর আফগানিস্তান খেলছে গ্রুপ ‘এ’ তে। ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, অষ্ট্রেলিয়া আর নিউজিল্যান্ড খেলছে গ্রুপ ‘বি’

  • অন্য সবার মত আমিও আশায় বুক বেঁধে ছিলাম, টি-টোয়িন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে টাইগারদের শুরুটা হবে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় দিয়ে। কিন্তু গতকাল (বুধবার) একটু হলেও হতাশই হতে হয়েছে। বাংলাদেশ হারলেও যে ব্যবধান এত বড় হবে ভাবিনি। কেন যে বোলিংটা এত খারাপ হলো আমাদের! পাকিস্তানের রান সত্যিই

  • কমান্ডার আরিফ, সামি, জাওয়াদ আর রাকিবের সঙ্গে প্রচুর জ্ঞান বিতরন হচ্ছিল আমার-কেন এশিয়া কাপের ফাইনালে হারলাম। শেষ সিদ্ধান্ত অনেকটা এরকম মাশরাফির পরিকল্পনা হোচট খেয়েছে হঠাৎ বৃষ্টিতে খেলা পাঁচ ওভার কমিয়ে দেয়া, টস হেরে যাওয়া। যার ফলে ধোনির পরিকল্পনার অনুমোদনে খেলতে হয়েছে। সেই সঙ্গে মুস্তাফিজের না

  • মেজর চাকলাদার (অব:) :  আমি ৮০’র দশকের কথা বলছি। তখন হকি মাঠ ছিল ডিআইটি’র উল্টো দিকে। তখন মাঠ বোঝাই থাকতো দর্শকে। খেলার পরও খেলা নিয়ে হতো আলোচনা। ২০০০ সন থেকে হকি মাঠ দর্শক শূন্য। প্রথমত ঐ সময় অর্থাৎ ৮০’র দশকে এতো টিভি চ্যানেল ছিলো না। বিনোদনের

  •   লেখকের স্টাডি রুমে গলফার সিদ্দিকুর ও লেখক। মেজর চাকলাদার(অবঃ): ফুটবলে ফিফা’র নিয়মই চূড়ান্ত। একইভাবে গলফ খেলার যাবতীয় আইন, আচার আচরণ সবই নিয়ন্ত্রন হয় স্কটল্যান্ডের রয়্যাল অ্যান্ড এনন্সিয়েন্ত গলফ ক্লাব অব সেন্ট এন দ্রাইজের মাধ্যমে । যা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৪ ই মে ১৭৫৪ সালে ।

  • সানাউল হক খান : বুঝি’ জমে উঠলো টুর্নামেন্ট! চতুর্থ দিন, ৮ম ম্যাচ। পক্ষ-প্রতিপক্ষ দল দুটো হলো আফগানিস্তানের ডি স্পিন ঘার বাজান ফুটবল ক্লাব এবং কলকাতা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। ধীরলয়ে শুরু হওয়া ম্যাচটির যবনিকাপাত ঘটলো রুদ্ধশ্বাসে, সেয়ানে-সেয়ানে। টান-টান উত্তেজনার ম্যাচটি এ অব্দি বলা যায় টুর্নামেন্টের জম্পেস

  • সানাউল হক খান : বহুদিন পর, বহু বছর পর, ঢাকা মোহামেডানকে দেখা গ্যালো বিদেশি কোনো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে এমন পজিটিভ আর এ্যাটাকিং ফুটবল খেলতে! শ্রীলংকার ‘সলিড’ দলকে ‘ঢিলা’ বানিয়ে গোল-তৃষ্ণা নিবারণ করলো ৬-১ ব্যবধানের বিশাল বিজয়। খোদ মোহোমেডানের কোনো কর্মকর্তাও এরকম ‘সলিড’ বিজয় আশা করে নি।

  • অবশেষে মাহবুব হারুন আবার জাতীয় হকির দলের কোচ। নভেম্বরে মালয়েশিয়ায় অনুর্ধ্ব-২১ এশিয়ান হকি। এসএ গেমসের হকি আগামী বছর ভারতের গুয়াহাটিতে। জানুয়ারিতে হওয়ার কথা ছিল দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় এ গেমস। ওখানে তীব্র শীত, তাই গেমস পিছিয়ে গেছে এক বা দেড় মাস।

  • এদেশের ফুটবলে গৌরবোজ্জল এক অতীত ছিল, ছিল সোনালী যুগ। আজ গ্যালারিতে বসে উত্তেজনাকর কোন ম্যাচ দেখতে দেখতেও এমন স্মৃতি রোমন্থন করতে শোনা যায় কত জনকে। আজকের মামুনুল-এমিলিদের যে কোন অর্জনও দর্শকদের স্মৃতিতে ভাস্বর করে তুলে সেই সত্তর-আশির দশকের ফুটবলকে। কল্পনায় তারা শুধু খুঁজে চলেন একজন সালাউদ্দিন, সালাম মুর্শেদি, কায়সার, সাব্বির, মোমেন মুন্নাদের। এমনও অনেক আছেন যারা বলেন, এই প্রজন্ম খুবই হতভাগা! তারা দেশের ফুটবলের আসল উন্মাদনাটা দেখতেই পায়নি।

  • রক্তিম বর্ণ ধারন করে সূর্য যখন ফতুল্লাহর পশ্চিম আকাশে হেলে পড়েছে, ঠিক সে সময় মোহাম্মদ শহীদকে সঙ্গে নিয়ে বিসিবি একাদশের জয়ের মশাল জালিয়ে যাচ্ছিলেন সোহাগ গাজী। সাব্বির রহমান দূর্দান্ত এক সেঞ্চুরি করে জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন তার আগেই। হঠাৎ সোহাগ গাজী আউট হয়ে যেতেই খান সাহের ওসমান আলি স্টেডিয়ামে তৈরী হলো নিস্তব্ধ নীরবতা। ফ্লাড লাইট গুলো তখন সবে জ্বলতে শুরু করেছে। সেই আলো বিকেলের মলিনতাকে দূর করে দিচ্ছিল। কিন্তু জয়ের মশাল জ্বালাতে থাকা সোহাগ গাজী জয়ের বন্দর থেকে দলকে ১০ রান দূরে রেখে আউট হয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সবই যেন ধূসর হতে শুরু করছিল।

  • সানাউল হক খান : বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশনটা গুলিয়ে দেয়ার জন্য দুটো বিতর্কিত সিদ্ধান্তই অনেক। দোহানো দুই কাড়ি দুধ নষ্ট করার জন্য যেমনটি দু/এক ফোঁটা লেবুর রসই যথেষ্ট! ভারতের তথা যে কোনো ক্রিকেট-কুলীন দেশের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের জেতার যতোই কামনা করা হোক, ক্রিকেটের বানিজ্য-নির্ভর চোখ তাকে জবরদস্ত

  • মেলবোর্নে ভারতের বিপক্ষে ১০৯ রানের পরাজয়ের পর শিরোনামটা অন্য রকমও হতে পারতো। এই ধরুন, ‘স্বপ্ন ভঙ্গের বেদনা।’ কিন্তু সে রকম কিছু লেখা যাচ্ছে না কারন এই ম্যাচে হেরে আর যাই হোক স্বপ্ন ভঙ্গের বেদনায় পুড়তে হয়নি! স্বপ্ন যা পূরনের তা তো পূরন হয়েছে আগেই

  • সানাউল হক খান : থরহরি-ক্রিকেটের দুর্নাম ঘুচিয়ে বাংলাদেশ এখন প্রত্যাশা অনুযায়ী ক্রিকেট খেলতে ধাতস্থ। সব ধরনের ভীতি-বিহ্বলতা কাটিয়ে যে-কোনো শক্ত-পোক্ত প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে পারে।