for Add

১২৩ রানে অলআউট ইংল্যান্ড

206311নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ১১১ রানে বিধ্বস্ত হওয়ার পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভালো কিছু করার প্রত্যয় ছিল ইংলিশদের মধ্যে। কিন্তু ওয়েলিংটনে এসে সেই একই অবস্থা ইংলিশদের। বরং স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আরও খারাপ পরিস্থিতি।

একা এক টিম সাউদির হাতেই বিধ্বস্ত হতে হয়েছে ইংল্যান্ডকে। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ৩৩.২ ওভারে মাত্র ১২৩ রানে অলআউট ইংল্যান্ড। ৩৩ রান দিয়ে একাই ৭ উইকেট নিলেন সাউদি।

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমেই বিপর্যয়ে পড়ে ইংলিশরা। টিম সাউদির বোলিং তোপে পড়ে ৩৬ রানের মধ্যেই দুই উইকেট হারিয়ে বসে ইংলিশরা। ফিরে যান দুই ওপেনার ইয়ান বেল এবং মঈন আলি।

দলীয় ১৮ এবং ব্যাক্তিগত ৮ রানের মধ্যেই ইয়ান বেলকে বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন সাউদি। এরপর কিছুক্ষণ পর মঈন আলিও ফিরে যান দলীয় ৩৬ রানে। ১৫ বলে ২০ রান করেন তিনি। দলীয় ৫৭ রানে এবং ব্যাক্তিগত ১০ রান করে ট্রেন্ড বোল্টের বলে উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন গ্যারি ব্যালান্সও।

এরপর ৪৭ রানের জুটি গড়ে অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান আর জো রুট মিলে চেষ্টা করেন বিপর্যয় সামাল দিতে। কিন্তু টিম সাউদির অসাধারণ বোলিংয়ের সামনে বালির বাধের মত নিমিষেই ভেঙে পড়ে ইংলিশদের সব প্রতিরোধ। ১০৪ থেকে ১২৩- এই ১৯ রানের মধ্যেই আউট হলেন ৭জন ইংলিশ ব্যাটসম্যান।

৪১ বলে ১৭ রান করা ইয়ন মরগ্যানকে অবশেষে ফিরিয়ে দিলেন ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। তার বলে ওঠা ক্যাচটি তালুবন্দী করলেন অ্যাডাম মিলনে। এরপর আবারও শুরু হয় টিম সাউদির আগ্নি ঝরানো বোলিং।

জেমস টেলর কোন রান না করেই বোল্ড হয়ে গেলেন। জস বাটলার মাত্র ৩ রান করে আউট হলেন উইকেটের পেছনে লুক রঞ্চির হাতে ক্যাচ দিয়ে। ১ রান করা ক্রিস ওকসকে বোল্ড করে ফিরিয়ে দিলেন সেই সাউদি।

সর্বশেষ ইংলিশ ব্যাটিংয়ের চরম দুর্দশা ঢেকে আনেন টিম সাউদি’ই। ৪ রান করে উইকেটে থিতু হতে যাওয়া স্টুয়ার্ট ব্রডকে ক্যাচে পরিণত করালেন ড্যানিয়েল ভেট্টোরির হাতে। সাউদির তোপ তখনও বাকি ছিল। স্টিভেন ফিনকে স্লিপেই রস টেলরের হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন সাউদি।

শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হলেন সর্বোচ্চ ৪৬ রান সংগ্রাহক জো রুট। অ্যাডাম মিলনের বলে ভেট্টোরির হাতে ক্যাচ দেন রুট। ফলে মাত্র ১২৩ রানেই অলআউট হলো ইংল্যান্ড।

for Add