for Add

ম্যানইউকে হারিয়ে দিল চেলসি

Chelseaনিজস্ব প্রতিবেদক: সম্ভবত ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে মৌসুমের শেষ জমজমাট লড়াই ছিল এটা। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ম্যানইউ-চেলসি মুখোমুখি। উত্তেজনার রেশ লাগাম টেনে ধরা যাচ্ছিলনা। শেষ পর্যন্ত রেড ডেভিলস আর ব্লুজদের মহারণে জয় হলো হোসে মরিনহোর। ম্যানইউকে ১-০ গোলে হারিয়ে যে তিনি চেলসিকে দীর্ঘ পাঁচবছর পর শিরোপা স্বপ্ন দেখাচ্ছেন!

প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জয়ের একেবারে দ্বারপ্রান্তে চেলসি। লিগে আর বাকি মাত্র ৬টা ম্যাচ। তবে যে ধারবাহিকতায় চলছে, তাতে আগামী তিন ম্যাচ জিতলেই নিশ্চিত হয়ে যাবে শিরোপা জয়।

ব্লুজদের সামনে সবচেয়ে বড় বাধা ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সেই বাধাও শনিবার টপকে গেলো হোসে মরিনহোর শিষ্যরা। চেলসির হয়ে জয়সূচক একমাত্র গোলদাতা বেলজিয়ান তারকা এডিন হ্যাজার্ড।

ম্যানইউর বিপক্ষে এই জয়ে ৩২ ম্যাচ শেষে চেলসির পয়েন্ট দাঁড়াল ৭৬। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আর্সেনালের সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান ১০। সমান সংখ্যক ম্যাচে আর্সেনালের সংগ্রহ দাঁড়াল ৬৬তে। আর হারের ফলে আগের ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানেই থাকল ম্যানইউ। ৬১ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ম্যানসিটি।

এ নিয়ে লিগে ১৮তম গোলের দেখা পেলেন এডিন হ্যাজার্ড। একই সঙ্গে তিনি প্রমান করলেন, কেন তিনি পিএফএ প্লেয়ার অব দ্য ইয়ার জয়ের জন্য সবার চেয়ে এগিয়ে। ৩৮তম মিনিটেই মাঝ মাঠ থেকে বল পেয়ে দারুন ফিনিশিং টাচ দেন হ্যাজার্ড। বাঁপায়ের কোনাকুনি শটে ম্যানইউকে পরাস্ত করেন তিনি।

অথচ শুরুতেই একটি দারুন সুযোগ মিস করেন ওয়েন রুনি। তার শটটা সাইডবার ঘেঁষে বাইরে না গেলে প্রথমেই এগিয়ে যেতে পারতো ম্যানইউ। এর পর রাদামেল ফ্যালকাও তো একেবারে সুবর্ন সুযোগ মিস করেন। এ দু’জন যদি গোল করতে পারতেন, তাহলে আর্সেনালকে টপকে হয়তো দ্বিতীয় স্থানে উঠে যেতো ম্যানইউ। এমনকি চেলসিকেও চোখ রাঙানি দিতে পারতো তারা।

for Add