বিদেশের মাটিতে আইপিএল!

BCCIভারতের জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি লিগ আইপিএলের ১৩তম আসর বিদেশের মাটিতে আয়োজনের চিন্তা ভাবনা করছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

আইপিএলের ১৩তম আসর গেলো ২৯ মার্চ মাঠে গড়ানোর কথা ছিল। কিন্ত করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্ব ক্রিকেট স্তম্ভিত হয়ে পড়ে। তাই আইপিএলও যথাসময়ে শুরু হতে পারেনি। আর বর্তমান পরিস্থিতি আইপিএল এবারের ভবিষ্যত অন্ধকার। কারণ ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হলে ঐ সময় আইপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা বিসিসিআইর। কিন্ত বর্তমান করোনা পরিস্থিতি সেটিকেও অনিশ্চিত করে ফেলছে। তাই এখন বাধ্য হয়ে বিদেশের মাটিতে আইপিএল করার চিন্তাও করতে হচ্ছে বিসিসিআই’কে।

তেমনই জানালেন বিসিসিআই’র এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা। তিনি বলেন, ‘আইপিএল আয়োজন নিয়ে বোর্ড সবধরনের চিন্তা ভাবনা করছে। বিদেশে আইপিএল আয়োজন করার পরিকল্পনাও আছে বোর্ডের। আগেও তো বিদেশে আইপিএল হয়েছিলো। তবে বিদেশে আইপিএল আয়োজন করাটা বোর্ডের জন্য শেষ বিকল্প।’

এর আগে ২০০৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের জন্য পুরো আইপিএলই দক্ষিণ আফ্রিকায় হয়েছিলো। ২০১৪ সালে একই নির্বাচনের জন্য আইপিএলের প্রথম পর্ব হয়েছিলো আরব আমিরাতে।

ঐ দু’বার বিদেশে হলেও সঠিক সময়েই হয়েছিলো। তবে এবারের আইপিএল নিয়ে পরিস্থিতি ভিন্ন। তারপরও যে কোন উপায়ে আইপিএলের ১৩তম আসর আয়োজন করতে চায় বিসিসিআই। কারণ আইপিএল না হলে প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হবে বিসিসিআই’র।