for Add

বিসিবির জৈব সুরক্ষা ব্যবস্থায় সন্তুষ্ট ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রতিনিধি দল

আগামী জানুয়ারি মাসে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের। কিন্তু বললেই বাংলাদেশ সফরে আসতে পারবে না কোনো দল। এমনকি বাংলাদেশও কোনো দেশ সফর করতে পারবে না। কারণ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে সারা বিশ্বই এখন সতর্ক। তাই জাতীয় দলকে বাংলাদেশে পাঠানোর আগে এখানকার সুরক্ষা-বলয় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের দুই সদস্যের প্রতিনিধি দল।

গত শনিবার ঢাকায় আসেন প্রতনিধি দলের দুই সদস ড. অক্ষয় মানসিং এবং পল স্লোওয়ে। আক্ষয় মানসিং আইসিসি এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের মেডিক্যাল দলের সদস্য ও বোর্ডের পরিচালক। আর পল হলেন দলের নিরাপত্তা ম্যানেজার।

মানসিং বলেন, ‘বাংলাদেশের সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও পরিকল্পনায় আমরা সন্তুষ্ট। সময় বদলাতে শুরু করেছে। সবাই এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে আগ্রহী। আগামী বছরের শুরুতে বাংলাদেশ সফর সম্ভব কিনা, সেটি দেখতেই আমরা এখানে এসেছি। বলতেই হবে, বিসিবি যে প্রটোকলের কথা আমাদের জানিয়েছে, তা বেশ সন্তোষজনক। ঢাকা ও চট্টগ্রমে যা দেখেছি, আমরা তাতে খুশি। এখানকার পরিস্থিতি ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিচালকদের জানাবো। এখানে যে ব্যবস্থাপনা আমরা দেখেছি, তা বিশ্বের যে কোনো জায়গার মতোই ভালো।’

তিনি আরো বলেন, ‘যে হাসপাতাল ও হোটেলগুলোয় আমরা গিয়েছি, সেগুলো কোভিড-১৯-এর জন্য আন্তর্জাতিক মানের। তাই স্বাস্থ্য দিক বিবেচনায় আমরা খুবই খুশি।

কোয়ারেন্টাইন ও কোভিড প্রটোকল নিয়েও কথা বলেন মানসিং। তিনি বলেন, ‘এখানে আসার আগে একবার কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হয়ে আসতে হবে। আসার পর আরো তিন দফায় পরীক্ষা হবে। প্রটোকল অনুযায়ী, ৭ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

এর মধ্যে তিন দিন থাকতে হবে কক্ষেই। তৃতীয় দিনের পর দ্বিতীয় দফা কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হলে আমাদের অনুশীলনের সুযোগ মিলবে, তবে সেটি কেবল নিজেদের মধ্যেই। ৭ দিন না হওয়া পর্যন্ত বাইরের কারো সংস্পর্শে আসা যাবে না। ৭ দিন পর আমরা বাংলাদেশে নেট সেশন করতে পারবো।’

সবকিছু ঠিক থাকলে জানুয়ারিতে বাংলাদেশে আসবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সফরে তিনটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দু’টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার কথা দু’দলের। বাসস।

for Add