for Add

বসুন্ধরা কিংসের শিরোপা অক্ষুন্ন

ওয়ালটন ফেডারেশন কাপে বসুন্ধরা কিংস অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আজ রোববার শিরোপা লড়াইয়ে তারা ১-০ গোলে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডকে পরাজিত করে। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ৫২ মিনিটে জয়সূচক গোল করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড রাউল অস্কার বেচেরার।

অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন কিংস এর আগে আরো দু’বার ফাইনাল খেলেছে। ২০১৯ মৌসুমে তারা রানাসআপ ছিল। ২০২০ সালে হয়েছিল চ্যাম্পিয়ন। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জিতল কিংস। অপরদিকে সাইফ এবারই প্রথম ফাইনালে খেলল।

শিরোপা লড়াইয়ে কিংস ৪ মিনিটেই সম্ভব্য একটি গোলের উৎস খুঁজে পেয়েছিল। কিন্তু অফসাইডের ফাঁদে পড়ায় তা সম্ভব হয়নি। যে কারণে মিডফিল্ডার ইব্রাহিমের কাছ থেকে বল অধিনায়ক তপু বর্মন সেটিকে গোলে রূপান্তর করতে পারেননি।

তবে ৪৭ মিনিটে সাইফের ডিফেন্ডার রহমত মিয়ার দুর্দান্ত শট সময় মতো কিংসের গোলরক্ষক আনিসুর রহমান প্রতিরোধ করতে না পারলে ম্যাচে তাদের এগিয়ে যাবার একটি সুযোগ ছিল। যদিও তা হয়নি।

ম্যাচের ৫২ মিনিটে অবশ্য ব্রাজিলিয়ান রবসন সিলভার মাঝমাঠ থেকে বাড়ানো বল ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে আর্জেন্টাইন রাউল অস্কার বেচেরার গোল করে কিংসকে এগিয়ে দেন। এ গোলের উপর ভর করেই শেষ পযন্ত কিংস শিরোপা অক্ষুন্ন রেখে মাঠ ছাড়ে।

খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণ করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসের এমপি। চ্যাম্পিয়ন কিংস ট্রফি ও নগদ পাঁচ লক্ষ টাকা এবং রানার্সআপ সাইফ ট্রফি ও নগদ তিন লক্ষ টাকা অর্থ পুরস্কার পেয়েছে।

এছাড়া চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেড ফেয়ার প্লে ট্রফি লাভ করেছে। ফাইনালে কিংসের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার রাউল অস্কার বেচেরার সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পেয়েছেন। সাইফের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ইকেচুকু কেনেথ এনগউউকে টুর্নামেন্ট সেরা হয়েছেন। তবে সাইফের স্ট্রাইকার ইকেকুকু কেনেথ এবং কিংসের স্ট্রাইকার রাউল অস্কার বেচেরার সর্বোচ্চ পাঁচটি গোল করে যৌথভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন।

দুই দলের একাদশ

বসুন্ধরা কিংস: আনিসুর রহমান জিকু, তপু বর্মন (অধিনায়ক), বিশ্বনাথ ঘোষ, মাসুক মিয়া জনি, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, জোনাথন ফার্নান্দেজ, রাউল অস্কার বেচেরা, রবসন সিলভা, মতিন মিয়া, খালেদ সাফেই ও রিমন হোসেন।

সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব: পাপ্পু হোসেন, রহমত মিয়া, ইয়াসিন আরাফাত, সিরোজিউদ্দিন, রিয়াদুল হাসান রাফি (অধিনায়ক), ফয়সাল আহমেদ ফাহিম, জন ওকোলি, শাহেদুল আলম শাহেদ, আরিফু রহমান, ইমানুয়েল আরিওয়াচুকু ও কেনেথ নোকে।

রেফারি : জালাল উদ্দিন।

for Add